Home / Bangla / আফরাজুল খানের অমানবিক হত্যাকাণ্ড ও মুসলিমদের উপর চলমান ঘৃণা-বিদ্বেষের বিরুদ্ধে সরব হল এসআইও

আফরাজুল খানের অমানবিক হত্যাকাণ্ড ও মুসলিমদের উপর চলমান ঘৃণা-বিদ্বেষের বিরুদ্ধে সরব হল এসআইও

এমএন বাংলা ডেস্ক:মর্যাদা নিয়ে বেঁচে থাকা মানুষের মৌলিক অধিকার। মানবীয় মর্যাদাসহ অন্যান্য অধিকারগুলির জন্য জীবনের অধিকার পূর্বশর্ত। ভারতীয় সামাজিক পরিবেশ-পরিস্থিতির পর্যালোচনা করলে দেখা যায়-নির্যাতিত, নিপীড়িত সম্প্রদায়ের বেঁচে থাকার অধিকার গুরুতর ভাবে লুণ্ঠিত হচ্ছে। দলিত, মুসলিমসহ অন্যান্য সকল নির্যাতিত ও পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠী আজ দারুণ ভাবে বিপর্যস্ত।

এই পরিস্থিতিতে এসআইও পশ্চিমবঙ্গ শাখা আজকে একাডেমি অফ ফাইন আর্টস এর সামনে রাজস্থানে আফরাজুল খানের নৃসংশ ও অমানবিক হত্যাকাণ্ডের বিরুদ্ধে এক বিক্ষোভ কর্মসূচির আয়োজন করে । সংগঠনের রাজ্য সভাপতি ওসমান গনি বলেন, “সারাদেশ জুড়ে দলিত, মুসলিমসহ পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর উপর আক্রমন, গুম, খুন, হত্যালীলা আজ খুব সাধারন ব্যাপারে পরিণত হয়েছে। এ ধরনের অত্যাচার অগনিত। এ জাতীয় মানবীয় মর্যাদার হত্যালীলার যজ্ঞ গত দু-বছর দৃশ্যত বৃদ্ধি পেয়েছে। অসংখ্য মুসলিমও আজ এ জাতীয় ঘৃণা-বিদ্বেষের শিকার হয়েছে। মুসলিম, দলিত বা পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীকে কখনও গো-মাংস, কখনও লাভ জিহাদ, কখনও দেশপ্রেমের নামে আবার কখনও উগ্র জাতীয়তাবাদের নামে ঘৃণা-বিদ্বেষের শিকার হতে হয়েছে। কিন্তু বাস্তবতা হল যে এই ঘটনা গুলো জাতি-বিদ্বেষের নমুনা। শুধু মুসলিম হওয়ার কারনেই আজ অনেক মুসলিমের উপর আক্রমন, হামলা করা হয়েছে।”

সংগঠনের পক্ষ থেকে আরও জানানো হয় যে- বর্তমান এই প্রেক্ষাপটে নির্যাতিত নিপীড়িত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান করে। দেশের একটি দায়িত্বশীল ছাত্র সংগঠন হিসেবে এস.আই.ও নিরব দর্শক হয়ে বসে থাকতে পারেনা। কারণ সমাজ ও জাতির নিরবতা ভাঙার এটাই উপযুক্ত সময়। নিম্নবর্ণ, মুসলিম, দলিত ও অন্যান্য নির্যাতিত-নিপীড়িত সম্প্রদায়ের উপর ঘৃণা-বিদ্বেষের বিরুদ্ধে আমাদের সোচ্চার হতে হবে। জাতি ধর্মবর্ণ নির্বিশেষে দেশের আপামর জনগণকে মানবীয় মর্যাদা রক্ষা করতে এগিয়ে আসতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*